দশমিনায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফান মোকাবেলায় ১৩০টি সাইকোন সেন্টার প্রস্তুত

0
399

দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : করোনার এই মহাদুর্যোগের মধ্যে ঘূর্নিঝড় ‘আম্ফান’ আরেক অশনি সংকেত হয়ে দেখা দিয়েেেছ উপকূলীয় পটুয়াখালীর দশমিনায়। ঝড়ের আগমূহুর্তে আবহাওয়ার গুমটভাব ঠিক যেন ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর প্রলয়ংকারী সিডরের সেই ভয়াবহতার কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে প্রচারিত সাত নম্বর বিপদ সংকেতের খবর শুনে উৎকণ্ঠা আরো বাড়ছে মানুষরে মাঝে। গত সোমবার শেষ বিকালে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে মাইকিং করে সকল জনসাধারণকে আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুত নিতে বলা হয়েছে। এদিকে, ঝড়ে ব্যাপক য়তির হাত থেকে যাতে জান-মান রা পায় সেজন্য উপজেলা প্রশাসন আগাম প্রস্ততি নিয়ে রেখেছে। উপজেলার ১৩০টি সাইকোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে ওই সব সাইকোন শেল্টারে আশ্রিতদের সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও স্বাস্থ্য সুরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী র্কমর্কতা (ইউএনও) মোসাঃ তানিয়া ফেরদৌস জানান, ঘূর্নিঝড় আম্ফান মোকাবেলায় উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির মিটিং করে সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। উদ্ধার তৎপরতা, প্রাথমিক চিকিৎসা ও ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য স্বেচ্ছাসেবক এবং মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলার মোট ১৩০টি সাইকোন শেল্টারে আনুমানকি ৩৫ হাজার আশ্রিতদের প্রাথমিক খাদ্য সহায়তার জন্য পর্যপ্ত চিড়া, গুড়, পানি এবং মোমবাতি মজুদ রাখা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here