নড়াইলে আ’লীগ নেতা হত্যাকান্ডে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪৫ জনের নামে মামলা এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার করা যায়নি

0
464

নড়াইল প্রতিনিধি ॥ নড়াইলের নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য (মেম্বর) ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কাইয়ুম শিকদারকে (৪৮) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহামুদুল হাসান কায়েসসহ ৪৫ জনের নামে মামলা দায়ের হয়েছে। শুক্রবার (২৯ মে) রাতে নড়াগাতিথানায় মামলাটি দায়ের করেন নিহত আব্দুল কাইয়ুমের ছেলে নাইমুল ইসলাম
মিল্টন। এছাড়া এ হত্যা মামলায় ১০/১৫জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে।মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নড়াগাতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) রোকসানা খাতুন।মামলার বিবরণে জানা যায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরেগত ২৬ মে রাত পৌনে ৯টার দিকে নড়াইলের নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া ইউনিয়নপরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বর) ও কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগনেতা, বিলাফর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসমত আলী সিকদারের ছেলে কাইয়ুমসিকদারকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। কালিয়া উপজেলা সদর থেকে বাড়িতেফেরার পথে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা কালিয়া-চাপাইলসড়কের কালিনগর গ্রামের বাবু শেখের বাড়ির পার্শ্বে দুটি মোটরসাইকেলেরগতিরোধ করে আব্দুল কাইয়ুমকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে সন্ত্রাসীরা।এ সময়কাইয়ুম শিকদারের সঙ্গে থাকা নড়াগাতি থানা কৃষকলীগের সভাপতি আবুল হাসনাতমোল্যা, কলাবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা আপন দুভাই মতিয়ার মল্লিক ও সজীবমল্লিককে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে সন্ত্রাসীরা।স্থানীয় লোকজন কাইয়ুমসহচারজনকে উদ্ধার করে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলেকর্তব্যরত ডাক্তার তার (কাইয়ুম) মৃত্যু ঘোষনা করেন।
নড়াগাতি থানার ওসি রোকসানা খাতুন আরো জানান, এ মামলায় কোনো আসামিকে এখনোপর্যন্ত গ্রেফতার করা যায়নি। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here