আর কি বাকি থাকলো ? মাঠে চাষ করতে যাওয়ার সময় হালের গরু ছিনতাই

0
354

কামরুজ্জামান লিটন ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কাকিলদাড়ী মাঠে চাষ করতে যাওয়ার সময় জীবননগর-কালীগঞ্জ সড়কের কাটাখালি পুলিশ বক্রের সন্নিকটে কৃষককে বেঁধে রেখে তার হালের গরু ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়া সহ এলাকায় গরু চুরির ব্যাপক হিড়িক লেগেছে।
এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে প্রকাশ, সোমবার ২২শে জুন সকালে উপজেলার এস’বিকে ইউপির কাকিলাদাড়ী গ্রামের কুড়োন মন্ডলের ছেলে আসাদুল ইসলাম তার হালের গরু নিয়ে মাঠে চাষ করতে যাচ্ছিল পথিমধ্যে ঐ রাস্তায় পুলিশ বক্রের নিকট পৌছালে ৬/৭ জনের একদল ছিনতাইকারি তাকে বেঁধে রেখে তার হালের গরু ২টি ছিনতাই করে পাওয়ার ট্রিলার গাড়িতে তোলার সময় একটি ছুটে চলে যায়। অন্যটি তারা নিয়ে চলে যায়। এদিকে ২১ জুন রোববার দিবাগত রাতে উপজেলার ফতেপুর ইউপির কৃষ্ণচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আকরাম ব্যাপারীর ছেলে আনসার আলীর প্রায় ১লক্ষ টাকা দামের একটি গাভী গরু চুরি করে নিয়ে গেছে। একই রাতে ঐ গ্রামের মৃতঃ ঠান্ডু ডাক্তারের ছেলে মাবুদের ৪টি এবং মৃতঃ লোকমানের ছেলে ফকির মোহাম্মদের একটি গরু চুরি হয়ে যায়। এ সময় মালিক পক্ষ টের পেয়ে লোকজন নিয়ে চোরদের ধাওয়া করলে তারা গরু গুলো ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। সম্প্রতি মহেশপুর উপজেলায় গরু চুরি সহ ছিনতাই ডাকাতি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ মাসের ৩রা জুন পূর্ব পুরন্দপুর গ্রামের সোনা মিয়া খলিফার ছেলে বাচ্চু খলিফার গাই বাছুর চুরি হয়ে যায় এর চারদিন পর চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা থানা থেকে উদ্ধার হয়। খর্দ্দখালিশপুর গ্রামের কুড়োন মন্ডলের ছেলে শাহাজানের ৩টি গরু চুরি হয় এবং একই রাতে ফতেপুর বাজারে সন্তোষ হালদারের ছেলে ইন্দ্রজিতের দোকানে ৯টি মোবাইল সহ প্রায় দেড় লক্ষ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এ সব ঘটনায় মহেশপুর থানায় পৃথক পৃথক মামলা হয়েছে। এ বিষয়ে মহেশপুর থানার ওসি মোর্শেদ হোসেন খাঁন জানান, গরু ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে মামলা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here