ডুমুরিয়ায় স্বামীর পরকীয়ায় জ্বলছে একটি পরিবার

0
159
Exif_JPEG_420

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি,ডুমুরিয়া : ডুমুরিয়ায় পরকীয়ায় আসক্ত যৌতুক লোভী এক পাষন্ড এনজিও কর্মীর নির্যাতন সইতে না পেরে আদালতের দ্বারস্ত হয়েছে শান্তি লতা দাস নামের দু‘সন্তানের জননী। এ নিয়ে থানায় ও আদালতে পৃথক দুটি মামলা করে এখন মিথ্যা মামলা ও নানা হুমকির মধ্যে দিন কাটছে তার। মামলার বিবরণ ও ভূক্তভোগী শান্তি লতার পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০০৭সালে উপজেলার শোভনা দাস পাড়া এলাকার মৃত ভদ্রকান্ত দাসের মেয়ে শান্তি লতা দাসের আরাজী ডুমুরিয়া দাস পাড়ার সুনিল দাসের ছেলে ভোলানাথ দাসের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিয়ের পর তাদের কোল জুড়ে আসে তনুশ্রী (৯) ও চয়নিকা দাস (২)। কিন্তু চাকুরীজীবি এনজিও কর্মী স্বামীর পরকীয়ায় দুরে সরিয়ে দেয় স্ত্রী-সন্তানদের। পাশাপাশি তার উপর নেমে আসে অমানুষিক শারিরীক ও মানুষিক নির্যাতন। সাথে যৌতুকের থাবা। ভেসে যায় পরিবারের সকল সুখ। উপায়ন্ত না পেয়ে শান্তি লতা দাস নিজেই বাদী হয়ে থানা ও আদালতে পৃথক দুটি মামলা করেন। কিন্তু তাতেও থেমে নেই নির্যাতন। জেল-হাজত থেকে মুক্তি পেয়ে ভোলানাথ দাস শান্তি লতা দাসসহ পরিবারের অনেককে জড়িয়ে আদালতে একটি পাল্টা মামলা দায়ের করেন। এছাড়া মামলা তুলে নিতে নানা ভয়ভীতি ও হুমকী দিচ্ছে বলে জানান তিনি। এখন বিচারের আশায় অপোর প্রহর ও অসহায় বিধবা মায়ের সংসারে অতি বোঝা হয়ে আছেন তিনি। আদালত সুবিচার করবে এমন অপোয় রয়েছে পরিবারটি। এব্যাপারে ডুমুরিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ওবাইদুর রহমান জানায়, আমরা অনেকবার চেষ্টা করেছি পরিবারটিকে এক করার জন্য। কিন্তু উভয়ের মধ্যে সারাণ মনোমালিন্য থাকায় আমরা ব্যর্থ হয়েছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here