যবিপ্রবিতে ‘টিচিং অ্যান্ড রিসার্চ’শীর্ষক ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

0
152

(যশোর: ২২ নভেম্বর ২০২১ খ্রি.) : যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত বিভিন্ন বিভাগের গবেষণা কর্ম ও শিা ব্যবস্থার হালনাগাদ প্রদর্শনী বিষয়ে ‘এফইটি-এক্সিলেন্স ইন টিচিং অ্যান্ড রিসার্চ’ শীর্ষক একটি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। একইসাথে ওয়ার্কশপে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) কর্তৃক স্বর্ণপদকে ভূষিত হওয়ায় কেমিকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. জাভেদ হোসেন খানকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। আজ সোমবার বিকেলে যবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের গ্যালারিতে এই ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গালিব।
ওয়ার্কশপে ২০১৮-২০২০ সালের অর্থাৎ বিগত তিন বছরের প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষভুক্ত সাতটি বিভাগের বিভিন্ন শিা-গবেষণার অর্জন ও সাফল্যের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং (পিএমই) বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো: মেহেদী হাসান। গত তিন বছরে এ অনুষদের শিকবৃন্দ গবেষণার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বরাদ্দের বাইরে প্রায় দুই কোটি ১৪ লাখ টাকার অনুদান পেয়েছেন। একইসঙ্গে পরামর্শক, পরীণ, পণ্যের মানোন্নয়ন ও বিশেষজ্ঞ মতামত প্রদানের মাধ্যমে এ অনুষদের শিকগণ বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রায় ২৪ লাখ টাকা প্রদান করেছেন। এ অনুষদে প্রায় ২০টি অত্যাধুনিক গবেষণাগার রয়েছে। এ অনুষদের শিকদের গত তিন বছরে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গবেষণা সাময়িকীতে প্রায় ৬২৯টি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছে। প্রতি শিক হিসেবে প্রকাশিত গবেষণাপত্রের অনুপাত প্রায় ১:৭.৪। এ ছাড়াও অনুষদের গবেষণাকর্মের একটি প্যাটেন্ট গৃহীত ও তিনটি জমা দেওয়া হয়েছে এবং আনারস পাতা ও পাটের আঁশ থেকে পরিবেশবান্ধব ঢেউটিন, উন্নতমানের ফেসমাস্কসহ চারটি পণ্য তৈরি করা হয়েছে। ওয়ার্কশপে এলসভিয়ার ডাটাবেজে বিশ্বসেরা দুই শতাংশ গবেষক হিসেবে স্থান পাওয়া কেমিকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ড. জাভেদ হোসেন খান, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ইমরান খান ও সহকারী অধ্যাপক মো. বিপ্লব হোসেন এবং পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোহা. আমিনুল হককে ক্রেস্ট দিয়ে বিশেষ সম্মাননা জানানো হয়। পরে তাঁরা তাঁদের গবেষণার সাফল্য অর্জনের অভিজ্ঞতা এবং তরুণ শিকদের উদ্দেশ্যে দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য তুলে ধরেন। ওয়ার্কশপে অন্যদের মধ্যে যবিপ্রবির রিজেন্ট বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক ড. বিপ্লব কুমার বিশ্বাস, জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউল আমিন, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন ড. শিরিন নিগার, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. তানভীর ইসলাম, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. সুমন চন্দ্র মোহন্ত, এ্যাগ্রো প্রডাক্ট প্রসেসিং টেকনোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস, পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এইচ এম জাকির হোসেন, শারীরিক শিা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. জাফিরুল ইসলাম, ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এ এস এম মুজাহিদুল হক, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. তানভীর হাসান, বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. হাসান মো. আল-ইমরান, ওয়ার্কশপ আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক ও টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও শিকবৃন্দ অংশ নেন। ওয়ার্কশপ পরিচালনা করেন বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক মো. মাহমুদুল হক মিলু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here