বদরতলা বাজারের পাশে খালের পার থেকে বিদ্যুৎ থাম্বা অবসরনের ব্যাপারে বিদ্যুৎ অফিসার বরাবর চিঠি দেওয়া হলেও থাম্বা অবসরন করা হয়নি পানি উন্নয়ন বোডের এসও সাইদুর রহমান এর অভিযোগ,যে কোন মুহূর্তে খননের কাজ

0
170

আবুল হাসান দেবহাটা (সাতীরা) প্রতিনিধি ঃ সাতীরার দেবহাটা উপজেলার পারুলিয়া ইউনিয়নের চালতেতলার নিকটতম আশাশুনীর বদরতলা বাজার। এই বাজারেরনপাশে রয়েছে আট দাগের নামক গোটের খাল। এই খালের দুই পারে রয়েছে হালকাপাতলা কয়েকটি বসতি ঘর বাড়ি। এর চার ছাইটে শতশত বিঘার মৎস্য ঘের। এই খালটি সাপমারা খালের সাথে সংযোগ। এই খালটি খননের জন্য এলাকার মানুষ খুুুবিই প্রয়োজন মনে করলেও সরকারি পদেপে নিতে দেখা যায় নি। খালটি এলাকার জনসাধারণের খুবিই গুরুত্বপূর্ণ। পুুুর্বে খালটি যেমন ছিল তেমনই করার লে খালটি খননের ব্যাপারে মাপজরিপ কার্যক্রম শুরু। গতকাল সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোডের খুলনা বিভাগের সাতীরা পানি উন্নয়ন বোডের সরকারি অফিসার এসও সাইদুর রহমান সাথে আরও কর্মকর্তাদের কে নিয়ে বদরতলা বাজার মৎস্য আড়তের নিকট থেকে বেশ কিছু দুর যেয়ে সুইস গেট। এখান থেকে মুুজুর খালী গামী খালটি মাপজরিপ সম্পুর্ন করেন। এলাকার সবাই খননের ব্যাপারে খুশি। স্থানীয় লোকজন বলেন, নিম্ন চাপের কারনে বৃদ্ধি হওয়া খালের পানি নিরসনের খুবিই ভোগান্তি পোহাতে হতো। খালের পারে রয়েছে প্রায় ৪০ টির মতো কারেন্ট বিদ্যুৎ থাম্বা। থাম্বা থাকলে খননের সময় স্কেভেট এর সুর কারেন্টের তারে বেধে বড়ধরনের তি হতে পারে। পানি উন্নয়ন বোডের সাতীরা অফিসার এসও সাইদুর রহমান তিনি দৈনিক যশোর কে স্বাগতম জানিয়ে সাংবাদিক কে বলেন, খালের পারের থেকে বিদ্যুৎ থাম্বা গুলো অবসরনের ব্যাপারে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ অফিসার বরাবর চিঠি দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে আজ দীর্ঘ দিন পার হলেও থাম্বা অবসরনের কোন প্রকার আলামত দেখা যায় নি। কোন মুহূর্তে খালখনোন হবে জানতে চাইলে বলেন, পাশ্ববর্তী মৎস্য ঘেরের পানি সুকায়ে দিলেই খননের কাজ করা হবে। খালের পাশে রয়েছে একটি কলেজ। খালখননের সময় কলেজের তি হওয়ার আশাম্কা রয়েছে। যাহাতে কোন প্রকার তি না হয়,এটি কলেজ শিকের পে দাবী। সুন্দর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে খুবিই দ্রত্য খালের সেই নতুন যৌবন ফিরে পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here