নওয়াপাড়ায় ঋষিকে জরিমানায় সমালোচনার ঝড়

0
199

মালিকুজ্জামান কাকা, যশোর : যশোরের অভয়নগরের নওয়াপাড়া বাজারে ফুটপাত দখল মুক্ত না করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক চায়ের দোকান-সহ বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় বইছে। নওয়াপাড়া বাজার এলাকায় ফুটপাত দখল করে যত্রতত্র গড়ে ওঠা দোকানপাটে জরিমানা করা নিয়ে এ সমালোচনার শুরু হয়। আলোচনায় বিষয় বস্তু; বড় দখলদারদের উচ্ছেদ না করে কিছু সংখ্যক দখলদারদের সামান্য জরিমানা করে সড়কের পাশে বসা অসহায় জুতা সেলাই করা ঋষিকে ৪২০ টাকা জরিমানা। জানা যায়, বিগত ২৪ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ আমিনুর রহমানের উপস্থিতিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) তানজিলা আখতার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বেশ কিছু ফুটপাত দখলকারীকে জরিমানা করে। এসময় ৩ – ৪ ফুট ফুটপাত দখলকারী বড় ব্যবসায়ীদের ২০০- ২৫০, টাকা জরিমানা করা হয়, এবং রাস্তার এক পার্শে বসা ঋষিকে জরিমানা করা হয় ৪২০ টাকা। ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানার আদায়ের সংবাদ পেয়ে সেখানে স্থানীয় এক সংবাদকর্মী উপস্থিত হয়ে ছবি তুলতে গেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তার দায়িত্ব কর্তব্য পালনে বাঁধা সৃষ্টি করে, এবং তার সাথে অশালীন আচারণ করেন। এ বিষয়ে জুতা সেলাই করা (মুচি) প্রদীপ দাস বলেন, আমি রাস্তার কোনায় বসে জুতা সেলাই করি এ কর্মের উপর আমার সংসার চলে। সারা দিনে সেদিন ২২০ টাকা উপার্জন করেছিলাম। আমাকে জরিমানা করা হলো ৪২০ টাকা। আমি অনেক আঁকুতি মিনতি করে তাদের অনুরোধ করেছিলাম আমাকে মা করতে। ভেবেছিলাম স্যারেরা শিতি লোক, তারা আমার দুঃখটা বুঝবে। কিন্তু তারা বুঝলোনা বরং নির্দয়ের মতো জরিমানার টাকা আদায় করল। আমি ভগবানের কাছে বিচার দিয়েছি তিনিই এর বিচার করবে। এ বিষয়ে স্থানীয় পথচারীরা বলেন, প্রায়’ই নওয়াপাড়া বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ব্যবসায়ীদের জরিমানার করা হয়। তবে ফুটপাত দখল মুক্ত করতে কোন কার্যক্রম দেখা যায় না। গত ১৪ নভেম্বর রবিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকা দখল মুক্ত করতে তিন দিনের আল্টিমেটাম দেওয়া হয় কিন্তু অদৃশ্য কারণে এখনো প্রশাসনের প থেকে কোন পদপে নেওয়া হয়নি। নওয়াপাড়া বাজারের গার্মেন্টস পট্টি,জুতাপট্টি, চুড়িপট্টি গুরুহাটা, ভূষিপট্টি সহ কাঁচাবাজেরে সড়কগুলো দখলদারদের হাতে জিম্মি। দখলদারদের কারনে চুড়িপট্টি’র ১৬ ফিট রাস্তা আজ চার ফিট আকার চওড়া ধারন করেছে। এ সকল ফুটপাত দখল মুক্ত করতে প্রশাসনের প থেকে তেমন কোন ভূমিকা দেখা যায় না।
উপরোক্ত বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুর রহমান বলেন, জরিমানার বিষয়টি জানতে সহকারী কমিশনার (ভূমি)-র সাথে যোগাযোগ করুন। আমি সাংবাদিকের সাথে কোন খারাপ আচারন করি নাই। আমি তাকে চিনতাম না, তাই তাকে ছবি তুলতে নিষেধ করেছিলাম।
এবিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানজিলা আখতার বলেন, ইতিপূর্বে জুতা সেলাই করা ঋষিকে সতর্ক করা হলেও তিনি ফুটপাত দখল করে কাজ করছিলেন। সে জন্যই তাঁকে জরিমানা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here