দেবহাটায় থামছে না নির্বাচনী সহিংসতা/ হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় আরো দুই মামলায় ৮ জন আটক

0
151

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি : ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ৩য় ধাপের নির্বাচনের পর থেকে সহিংসতা থামছে না। ক্রমশ আরো ঘণিভূত হচ্ছে। এতে বাড়ছে মামলার সংখ্যা। ভীতি বাড়ছে সাধারণ মানুষের মাঝে। কুলিয়া ও সখিপর ইউনিয়নে ১ ডিসেম্বর ঘটে যাওয়া দুটি সহিংসতায় আরো পৃথক পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে। এতে দুই মামলায় ৮ জন আসামীকে আটক করেছে দেবহাটা থানা পুলিশ। কুলিয়া ইউনিয়নের দেউকুলে বসতবাড়িতে প্রবেশ করে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় মৃত কাশেম বিশ্বাসের ছেলে আলমগীর হোসেন (৪২) বাদি হয়ে ১০জনকে আসামী করে (১ ডিসেম্বর) একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় ৫ জন আসামীকে আটক করেছে পুলিশ। অপরদিকে সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বিভিন্ন কাগজপত্র নিয়ে পরাজিত চেয়ারম্যানের বাড়ি নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে ৬নং ওয়ার্ডের গ্রামপুলিশ ফারুক হোসের উপর জনতার হামলার ঘটনায় তার মা ফতেমা খাতুন বাদি হয়ে (১ ডিসেম্বর) ১০ জন সহ ৩০/৩৫ জনকে অজ্ঞত আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় কামটা গ্রামের কানাই লালের ছেলে গোপাল মন্ডল (৫২), উত্তর সখিপুরের মৃত শাহজউদ্দীনের ছেলে আব্দুর রহিম (৫০) ও সখিপুরের নুর আলী মোল্যার ছেলে বিল্লাল হোসেন (২৮) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বতর্মানে এসব এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। তবে সাধারণ মানুষ সহিংস কর্মকান্ড পরিহার করতে উভয়কে স্বাভাবিক থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন। দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ ওবায়দুল্লাহ জানান, কুলিয়া ও সখিপুরের ২টি ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় ৮ আটক করা হয়েছে। আটক আসামীদের বৃহস্পতিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কঠোর অস্থানে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here