রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাদঁকে শাস্তির দাবিতে যশোরে বিক্ষোভ মিছিল

0
52
নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকিদাতাথ রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাদঁকে শাস্তির দাবিতে যশোরে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পূর্বষোঘণা অনুযায়ী সোমবার বিকেলে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে কাপুড়িয়াপট্টি দিয়ে দড়াটানা এসে শেষ হয়। এ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে জেলা আথলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
বিক্ষোভ মিছিলে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, ‘রাজশাহী বিএনপির এক নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। শেখ হাসিনাকে হত্যা তো দূরের কথা একটা আঁচড়ও লাগতে দেব না। শেখ হাসিনাকে নিয়ে যদি কোনো রকম ষড়যন্ত্র করা হয় তাহলে দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দাঁত ভাঙা জবাব দেওয়া হবে। দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে বিএনপি। তাদের রাজপথে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করা হবে।
তিনি আরও বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি জাতির পিতাকে হত্যার পর দেশকে উল্টোপথে নিয়ে যাওয়া শুরু করে। তারা ভেবেছিল এই দেশে বঙ্গবন্ধুর কথা আর কেউ বলতে পারবে না। তার হাতে গড়া রাজনৈতিক দল ও আদর্শের পতাকা কেউ তুলে ধরবে না। ১৯৮১ সালের ১৭মে বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশে ফিরে এসে দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্যদিয়ে তিল তিল করে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোকে গড়ে তুলেছেন। আবারও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনাকে প্রকাশ্য জনসভায় বিএনপি নেতা হত্যার হুমকি দিয়েছে। আজ আমাদের প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে শপথ নিতে হবে; শরীরে রক্ত থাকা পর্যন্ত আগামী দিনের বিএনপি ও জামায়াত যতই ষড়যন্ত্র করুক না কেনো সব অপশক্তি রুখে দিবো। আমরা জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীরা দাঁত ভাঙা জবাব দিবো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যখন ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, সে সময় থেকেই বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করছে বিএনপি। ২০২৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকাকে জয়যুক্ত করে আবারো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য দলীয় নেতাকর্মীদের একযোগে মাঠে থেকে কাজ করার আহবান জানান তিনি।
মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা গোলাম মোস্তফা ও হুমায়ন কবির কবু, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউর হাসান হ্যাপী, সদস্য অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন, সামির ইসলাম পিয়াস, সদস্য ও উপশহর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এহসানুর রহমান লিটু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কবির পিয়াস, সাধারণ সম্পাদক তানজীব নওশাদ পল্লব, যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল, ছাত্রলীগের সাবেক সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী, সাবেক সহ-সভাপতি এস এম নিয়ামত উল্লাহ, সাবেক সহ সভাপতি হাফিজুর রহমান, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রবিউল ইসলাম, শহর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মেহেদী হাসান রনি, জেলা পরিষদের কাউন্সিলার রেহেনা খাতুন, পৌর কাউন্সিলার নাসিমা আক্তার জলি, শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইউসুফ শাহীদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন রাজিব, নওয়াপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হুমায়ন কবির তুহিন, দেয়ার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান, চুড়মনকাটি ইউনিয়নের  সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মুনা প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here