সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ অবৈধ জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে চাঁদাবাজির মামলায় ফাঁসালো নিরীহ ৫ ব্যক্তিকে

0
41

চুড়ামনকাটি (যশোর) প্রতিনিধি॥ অবৈধভাবে জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে এবার যশোর সদরের চুড়ামনকাটির শ্যামনগর গ্রামের নিরীহ ৫ ব্যক্তির চাঁদাবাজি মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় চেয়ারম্যানের শালিস অমান্য করে জোরপূর্বক জমি দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে এই গংয়ের সদস্যরা। বর্তমানে অবৈধ দখলদারদের হুমকির কারণে চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছে নিরীহ ৫টি পরিবারের সদস্যরা। বৃহস্পতিবার এমন অভিযোগ এনে চুড়ামনকাটি প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করেন শ্যামনগর গ্রামের পল্লী চিকিৎস শহীদ হোসেন।
সাংবাদিক সম্মেলনে শহীদ হোসেন বলেন, শ্যামনগর গ্রামের ইবাদত গং ও আনোয়ার হোসেন গংয়ের মধ্যে সাজিয়ালী মৌজায় ৭৭৮ নং খতিয়ানের ৩৩৮ ও ৭৫৪ দাগের ১০ শতক জমি নিয়ে দ্বন্দ চলে আসছে। যা চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইবাদত হোসেনের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিন তদন্তপূর্বক শালিস করে সুষ্টু মিমাংসা করে দেন। উক্ত শালিস ইবাদত গং মানলেও অমান্য করেন আনোয়ার গং। তারা জমি না পেয়ে আমিসহ এলাকার ৫জন নিরীহ ব্যক্তির নামে মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি সুষ্টু তদন্তের জন্য বর্তমানে সিআইডি যশোর শাখাকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
তিনি লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, আনোয়ার হোসেন নিজে বাদী হয়ে জমি না পেয়ে যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় সম্পূর্ন মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন ৫ জনকে আসামী করে। যার নং ৯৩২/২০২৩ ধারাঃ ৩২৩/৩৮৫/১০৯। মামলার আসামীরা হলেন, মমিনুর রহমান, পিতা মৃত শমসের আলী বিশ্বাস, আয়নাল হোসেন, পিতাঃ মৃত সরু বিশ্বাস, ইবাদত, পিতা ঃ সরু বিশ্বাস, শাহাদত, পিতা সরু বিশ্বাস, মোঃ শহীদ ডাক্তার, পিতাঃ শফিয়ার রহমান, সর্ব সাং শ্যামনগর, সাজিয়ালী, কোতয়ালী যশোর। তার দাবি সঠিক তদন্ত করলে তারা উক্ত মামলা থেকে অব্যহতি পাবেন।
এসময় তিনি আরো অভিযোগ করেন, বিবাদি ও তার পরিবারের সদস্যরা এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত। তাদের পরিবারের সদস্যদের নামে একাধিক মামলাও রয়েছ্।ে এলাকায় তারা মাদক কারবারী হিসাবে পরিচিত।এছাড়া এই পরিবারের নামে রয়েছে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মুন্নার উপর বোমা হামলার মামলাও। এলাকার নিরীহ মানুষ এই পরিবারের নিকট জিম্মি হয়ে পড়েছে। সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে তারা মামলাটি সঠিক তদন্তের দাবি জানান।
সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পল্লী চিকিৎসক শহীদ ডাক্তার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মামলার অপর আসামী মমিনুর রহমান, শাহাদত বিশ্বাস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here