নাদিম হত্যা: বিচার না হলে জনতাকে নিয়ে রাজপথে নামার হুঁশিয়ারি

0
45

যশোর: জামালপুরে বাংলানিউজটুয়েন্টিফোর.কমের ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিম হত্যার ঘটনায় যশোরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার (১৭ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় জেলার প্রেসক্লাব সামনে যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের (জেইউজে) আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রেসক্লাব যশোর ও ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন একাত্মতা প্রকাশ করে।ঘণ্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জামালপুরে সাংবাদিক নাদিম হত্যার ঘটনায় জড়িত আসামিদের আটক করা হয়েছে। তবে বিগত ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি যেন না হয়। নাদিম হত্যার মাস্টার মাইন্ডসহ হত্যায় সরাসরি অংশ নেওয়া আসামিদের নাম পুলিশসহ দেশের সাধারণ মানুষ জেনে গেছে। ফলে আটকদের রিমান্ডে নিয়ে পেছনের নির্দেশ দাতাদের নাম বের করে দ্রুতই অভিযোগপত্র দাখিল করে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে।সাংবাদিক নেতারা বলেন, জড়িতদের এমন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে, যাতে সাংবাদিকদের ওপর আর কেউ হামলা করতে সাহস না পায়। নাদিম হত্যার সুষ্ঠু বিচার না হলে জনতাকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে নামবে সাংবাদিক সমাজ।যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনোতোষ বসুর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এইচ আর তুহিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি সাজেদ রহমান বকুল, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন।এ সময় মানববন্ধনে একাত্মতা ঘোষণা করে উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাব যশোর ও যশোর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা।উল্লেখ্য, গোলাম রাব্বানী নাদিম বকশিগঞ্জ উপজেলার নিলাখিয়া ইউনিয়নের গোমের চর গ্রামের আবদুল করিমের ছেলে।বুধবার (১৪ জুন) রাতে পেশাগত দায়িত্বপালন শেষে বাড়ি ফেরার পথে বকশীগঞ্জের পাথাটিয়ায় পৌঁছালে অস্ত্রধারী ১০ থেকে ১২ জন দুর্বৃত্ত নাদিমকে পিটিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। এরপর রাত ১২টায় সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা পৌনে ৩টার দিকে তিনি মারা যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here