নওয়াপাড়া রেলস্টেশন চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ বন্ধে সচেতনতামূলক প্রচারাভিযান

0
46

স্টাফ রিপোটার: যশোরের নওয়াপাড়া চলন্ত ট্রেনে এখন বড় আতংকের নাম পাথর নিক্ষেপ। ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ বন্ধ করতে খুলনা রেলওয়ে জেলা পুলিশ গণসচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু করেছে। গতকাল সোমবার দুপুর দুইটার যশোরের অভয়নগর নওয়াপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে এ প্রচারণা শুরু হয়। সেখানে উপস্থিত সাধারণ মানুষ ও যাত্রীদের মধ্যে কুষ্টিয়া রেলওয়ে সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মজনুর রহমান, খুলনা রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোল্যা খবীর আহমেদ ও পুলিশ পরিদর্শক(ডিআইও-১) মোল্যা আফজাল হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা প্রচারণা চালান। প্রচারণার মধ্যে ছিল চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ না করা।
‘পাথর ছোঁড়া বন্ধ করি, নিরাপদে রেলভ্রমণ করি’, ‘রেলপথে দিনে রাতে, চলতে চাই নিরাপদে’ এই শ্লোগানে আজ দুপুর দুইটায় ওয়াপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে এ প্রচারণা শুরু হয় এবং তা দুপুর তিনটা পর্যন্ত চলে। পথসভায় সহকারী পুলিশ সুপার মজনুর রহমান বলেন, চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনা দিন দিন বেড়েই চলেছে। পাথরের আঘাতে অনেক যাত্রী হতাহত হচ্ছেন। পাথর নিক্ষেপ করা দূর্বৃত্তদের শনাক্ত করা বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নেওয়ায় ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ দিন দিন বেড়েছে। তিনি বলেন, অন্য যে কোন গণপরিবহনের তুলনায় ট্রেন ভ্রমণ নিরাপদ ভেবে অনেকে ট্রেনে যাতায়াত করেন। কিন্তু ট্রেনে দূর্বৃত্তদের পাথর নিক্ষেপের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় যাত্রীদের মাঝে চরম আতংকের সৃষ্টি হচ্ছে। চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় রেলপথ অনিরাপদই থেকে যাচ্ছে। বিগত দিনে চলন্ত ট্রেনে পাথরের আঘাতে রেল কর্মীদেরও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। তবে প্রচার প্রচারণা করার কারণে আগের তুলনায় পাথর নিক্ষেপের ঘটনা কিছুটা কমেছে। আগে প্রতিদিনই কোনো না কোনো ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনা ঘটতো। বর্তমানে এটি কিছুটা কমেছে। তিনি পাথর নিক্ষেপকারীকে হাতে নাতে ধরিয়ে দিলে ১৫ হাজার টাকা পুরষ্কারের ঘোষণা দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here