বৃষ্টি নামলেই মনিরামপুর সাব রেজিষ্ট্রি অফিস সহ পৌর আবাসিক এলাকায় জলাবদ্ধতা, পৌরবাসীর ক্ষোভ। 

0
52
মণিরামপুর(পৌর) প্রতিনিধি:-বৃহস্পতিবার মণিরামপুর শান্তির বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে পৌরবাসী।
 দীর্ঘ দিন তাপদাহের পর শান্তির বৃষ্টিতেই যেন ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে মণিরামপুর পৌরবাসীর।  মণিরামপুর  পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা অত্যান্ত নাজুক। আবর্জনায় ভরপুর নালা-নর্দমার পাশ দিয়ে মানুষের হাঁটাচলা দায় হয়ে উঠেছে। দুর্গন্ধে বিষিয়ে উঠছে পৌরবাসি। এছাড়াও বৃহস্পতিবার দুপুরের পরে  মুষলধারে বৃষ্টিপাত হওয়ায় আবাসিক এলাকায় নালা-নর্দমার আবর্জনা রাস্তায় উঠে যায়। এরফলে চরম দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়।
মনিরামপুর পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা খুবই খারাপ থাকাই এবং পানি নিষ্কাশনের  সুব্যবস্থা না থাকায় রাস্তার উপরে পানি জমে যায়।  মনিরামপুর পৌরসভা প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা বিধায় এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।
 মনিরামপুর পৌরসভা তিন নম্বর ওয়ার্ডের ভগবান পাড়ার ভিতরে, পাবলিক লাইব্রেরীর সামনে,পশু হাসপাতাল,  অডিটোরিয়াম এর সামনে রাস্তার উপর ও সাব রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে হাটু সমান পানি জমে থাকতে  দেখা যায়।
রাস্তার উপর হাটু সমান পানি বেধে থাকায় যাতায়াতে অসুবিধা এবং ভোগান্তিতে পড়েন পৌরবাসী সহ পথচারীরা।
  এছাড়া মনিরামপুর সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের বারান্দার নিচে  যাতায়াতের জায়গা হাটু পর্যন্ত পানির নিচে তলিয়ে যায়।প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে ভূমি রেজিষ্ট্রেশন করার জন্যে শত শত লোকের সমাগম ঘটে।
বৃষ্টি নামলেই  অফিস পাড়া এবং কিছু কিছু  আবাসিক এলাকায়  সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের পর ভারী বর্ষনে এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। উপজেলা পরিষদ এর ভিতরে সাব রেজিস্ট্রার এর কার্যালয় এর সামনে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। ফলে এসকল অফিসের কার্যক্রমে বিঘ্ন ঘটে।
বাহারুল নামে একজন ভূমি সেবা গ্রহিতা  বলেন আমি গতবছর ভূমি রেজিষ্ট্রি করতে এসে বৃষ্টির ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে  ভূমি রেজিষ্ট্রেশন করতে না পেরে বাড়িতে ফিরে গিয়েছিলাম আজ রেজিষ্ট্রি অফিসে বিশেষ একটা কাজে এসেছি আজও দেখছি বৃষ্টির ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের সামনে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ার ঘটনা দীর্ঘদিন যাবৎ।জলাবদ্ধতার সৃষ্টির ফলে জমি রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। এসময় ভূমি রেজিষ্ট্রি করতে আসা  শত শত লোকজন ভূমি রেজিষ্ট্রেশন করতে না পেরে বাড়িতে ফিরে যায়। পানি নিষ্কাশনের জন্যে অফিসের সামনে ছোট একটা ড্রেন সেটাতে ময়লা আবর্জনা পড়ে পানি ঠিকমত নিষ্কাশন হয় না এজন্যে একটু বৃষ্টি হলেই অফিসের সামনে হাটু পানি বেধে যায়।এ দূর্ভোগ থেকে  রেহায় পেতে রেজিষ্ট্রি অফিসের সামনের ড্রেনের পুনঃসংস্কার অত্যান্ত জরুরি।
এছাড়া মণিরামপুর পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যাবস্থা নাজুক থাকায় ভগবান পাড়ার ভিতরে বাড়ির উঠানে ড্রেনের ময়লা আবর্জনা দুর্গন্ধযুক্ত পানি জমা হয়েছে।এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন পৌর বাসী।   একজন পথচারী বলেন, মনিরামপুর পৌরসভা প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা হলেও দেখেন সামান্য বৃষ্টিতে এখন কি অবস্থা। শুধু খাতা কলমে প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা বাস্তবে না।
মণিরামপুর  তিন নাম্বার ওয়ার্ডের একজন স্থায়ী বাসিন্দা বলেন, পৌরসভা থেকে ড্রেন ভালোভাবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না করার কারণে ময়লা আবর্জনায় ড্রেন বন্ধ হয়ে এখন রাস্তার উপর পানি জমে গেছে। ড্রেনের  ময়লা আবর্জনা সবকিছুই দেখেন রাস্তার উপর চলে আসছে। দুর্গন্ধযুক্ত ময়লা আবর্জনা সব  কিছুই পানির সাথে মিশে একাকার হয়ে রাস্তার উপর পানিতে ভেসে উঠে আমাদের বাড়ির ভিতর চলে আসছে ।রাস্তা দিয়ে চলাচল করা এখন কষ্ট সাধ্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।আমরা চাই দ্রুত ড্রেন টি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে পানি নিষ্কাশনের সুব্যবস্থা করা হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here