স্বাস্থ্য বিভাগের ছয়জনকে ফুলেল শুভেচ্ছা লোহাগড়া উপজেলা করোনা মুক্ত ঘোষণা

0
399

লক্ষীপাশা(নড়াইল)প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ায় করোনা মুক্ত হওয়ায় স্বাস্থ্য বিভাগের ছয়জনকে ফুলেল শুভেচ্ছা দেয়া হয়েছে। উৎসাহ দিতেই রবিবার সকালে এ আয়োজন করা হয়। আক্রান্ত সকলেই এখন করোনা মুক্ত। নতুন কোন করোনা সনাক্ত হওয়া রোগীও নেই। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রবিবার(১০ মে) সকালে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শরীফ সাহাবুর রহমান করোনা মুক্ত হওয়ায় ডাক্তার মোঃ শরিফুল ইসলাম, ডাক্তার মোঃ খালিদ সাইফুল্লাহ, ডাক্তার নাইমা আলী শান্তা, ডাক্তার মোঃ মুকুল হোসেন (স্যাকমো), মোঃ শরিফুল ইসলাম (ডেন্টাল টেকনোলজিস্ট), মোঃ কবির হোসেন (ইপিআই ভ্যাকসিন পোর্টার) কে করোনামুক্ত ঘোষণা করেন এবং ফুলেল শুভেচ্ছা দেন । এছাড়াও করোনায় আক্রান্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক নার্সের স্বামী রিয়াজ হাওলাদার এবং লোহাগড়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মোজাম খানকেও করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়। আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, লোহাগড়া উপজেলা আপাতত করোনা মুক্ত। ডাক্তার সহ সাধারণ মানুষ যারা পূর্বে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন নতুন টেস্টে তারা সকলেই এখন করোনা নেগেটিভ। আবার নতুন আক্রান্ত কোন রোগীও নেই। উল্লেখ্য,গত ২২ এপ্রিল যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ল্যাবে ডাক্তার মোঃ শরিফুল ইসলাম, মোঃ খালিদ সাইফুল্লাহ, নাইমা আলী শান্তা, মোঃ মুকুল হোসেন, মোঃ শরিফুল ইসলাম, মোঃ কবির হোসেনের করোনা সন্দেহে নমুনা টেস্টে পাঠালে করোনা পজিটিভ আসে। এর পরে নমুনা টেস্টে পাঠালে ২৬ এপ্রিল রিয়াজ হাওলাদার ও মোজাম খানের করোনা পজিটিভ আসে। এক-দুসপ্তাহ পরে আক্রান্ত ওই ৮ জনের নমুনা টেস্টের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে ১০ মে সকলেরই করোনা নেগেটিভ এসেছে।উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শরীফ সাহাবুর রহমান বলেন, কোন ভয় নয়, সচেতন থাকতে হবে। করোনা নিয়ে উৎকণ্ঠিত হবার কিছু নেই। আমরা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করেছি। তিনি সকলকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আহবান জানান। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বি,এম কামাল হোসেন বলেন, লোহাগড়া বাজারে প্রায় সকল দোকানই খোলা। গাদাগাদি করে মানুষ কেনাকেটা করছে। অথচ এটা আমাদের সকলের জন্যই ঝুঁকি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here